শিরোনাম

এখনো অশান্ত মণিপুর, পুরো জুন মোতায়েন থাকবে সশস্ত্র বাহিনী

ভারতের মণিপুরের সাম্প্রতিক অশান্তির আবহেই সে রাজ্যে সশস্ত্র বাহিনীকে আপাতত বহাল রাখারই সিদ্ধান্ত নিল দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার। গত ৩ মে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের এই রাজ্যে সহিংস ঘটনার খবর প্রকাশ্যে আসার পরই সেখানে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছিল। এর আগে সূত্র থেকে জানা গিয়েছিল, ১০ জুন পর্যন্ত মণিপুরে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন থাকবে। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে গোটা জুন মাসেই মণিপুরে কেন্দ্রীয় সশস্ত্র বাহিনীর উপস্থিতি বজায় রাখতে চাইছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এখন মণিপুরে মোট ১১৪ কম্পানি কেন্দ্রীয় সশস্ত্র বাহিনী রয়েছে। তার মধ্যে ৫২ কম্পানি সিআরপিএফ, ১০ কম্পানি র‌্যাপিড অ্যাকশন ফোর্স, ৪৩ কম্পানি বিএসএফ, চার কম্পানি আইটিবিপি এবং পাঁচ কম্পানি এসএসবি মোতায়েন করে রাখা হয়েছে।

চলতি সপ্তাহেই মণিপুরে আরো ৩০ কম্পানি আধা সামরিক সেনা মোতায়েন করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এই প্রসঙ্গে সশস্ত্র বাহিনীর এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা একটি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, কয়েক মাস মণিপুরে থাকতে হতে পারে, এমনটা ধরে নিয়েই তারা যাবতীয় প্রস্তুতি চালাচ্ছেন।

বাহিনীকে পরিচালনা করার জন্য ডেপুটি কম্যান্ডান্ট পদমর্যাদার ২০ জন কর্মকর্তাকে মণিপুরে রাখা হয়েছে।

গত ৩ মে আদিবাসী ছাত্র সংগঠন অল ট্রাইবাল স্টুডেন্টস ইউনিয়ন অব মণিপুরের (এটিএসইউএম) কর্মসূচি ঘিরে অশান্তির সূত্রপাত হয়েছিল উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় এই রাজ্যে। মণিপুর হাইকোর্ট মেইতেইদের তফসিলি আদিবাসীর মর্যাদা দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে রাজ্য সরকারকে বিবেচনা করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। এর পরই আদিবাসী সংগঠনগুলো তার বিরোধিতায় রাস্তায় নামে।

আর সেই ঘটনা থেকেই সংঘাতের সূচনা হয় সেখানে।

মেইতেই জনগোষ্ঠীর সঙ্গে কুকি, জোসহ কয়েকটি তফসিলি আদিবাসী সম্প্রদায়ের সংঘর্ষ ঠেকাতে গত ৬ মে বিজেপি শাসিত মণিপুরের আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছিল মোদি সরকার। নামানো হয় সেনা এবং আসাম রাইফেলস বাহিনীকে। সামগ্রিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা তদারকের ভার দেওয়া হয় সিআরপিএফের সাবেক প্রধান কুলদীপ সিংকে। তার অধীনে এডিজিপি

কিন্তু এক মাসের বেশি সময় কেটে গেলেও সহিংসতা থামেনি। মণিপুর সহিংসতায় এখনো পর্যন্ত প্রায় ১০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহতের সংখ্যা প্রায় ৫০০। জাতিগত সহিংসতার জেরে ঘরছাড়া হয়েছেন ২৫ হাজারেরও বেশি মানুষ। সূত্র: কালেরর কণ্ঠ

আরও দেখুন

ইউক্রেনকে ব্রিটেনের দেওয়া জাহাজগুলো আটকে দেবে তুরস্ক

তুরস্ক মঙ্গলবার বলেছে, তারা ইউক্রেনকে ব্রিটেনের দেওয়া দুটি মাইন শিকারি জাহাজকে তার জলপথ দিয়ে কৃষ্ণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *