শিরোনাম

ক্যাচ-আপ কর্মসূচির আওতায় ‘‘চলো আনন্দে শিখি” শিখন কেন্দ্র উদ্বোধন

করোনা পরবর্তী সময়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের শিখন ঘাটতি পূরণ করার নিমিত্তে ক্যাচ-আপ কর্মসূচির আওতায় ‘‘চলো আনন্দে শিখি” শিখন কেন্দ্র উদ্বোধন করেন বাংলাদেশে নিয়োজিত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন এবং ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি শেলডন ইয়েট।

যুক্তরাজ্য সরকারের অর্থায়নে ও ইউনিসেফ বাংলাদেশ-এর কারিগরি সহযোগিতায়, শিখন ঝুঁকিতে থাকা ৭-১২ বছর বয়সী ১৯৩,০০০ শিশুর শিখন ঘাটতি পূরণের লক্ষ্যেদেশের বিভিন্ন সুবিধাবঞ্চিত অঞ্চলে গৃহীত একটি প্রকল্পের অংশ হিসেবে এই ক্যাচ-আপশিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।

আরও দেখুন

আজ থেকে মাঠে নামছে সশস্ত্র বাহিনী

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে স্থানীয় বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *