শিরোনাম

গ্রামীণ ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের উদ্যোগে  জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালনঃ

গ্রামীণ ব্যাংকের  প্রধান কার্যালয়ের উদ্যোগে  জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর ৪৭ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস যথাযথ মর্যাদায় পালন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের উপর আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন গ্রামীণ ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. একেএম সাইফুল মজিদ। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব এম.এ. মান্নান, এম পি। সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গ্রামীণ ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সম্মানিত পরিচালক জনাব মোঃ জসীম উদ্দিন। সভায়  স্বাগত বক্তব্য রাখেন গ্রামীণ ব্যাংকের  ব্যাবস্থাপনা পরিচালক জনাব মোঃ আবদুর রহিম খাঁন।
জাতীয় সংগীত ও পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করা হয়। অতঃপর বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের উপর প্রামাণ্য ̈ চিত্র প্রদর্শন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গান ও কবিতা আবৃতি করা হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি তাঁর বক্তবে ̈ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু তাঁর সমগ্র জীবন বাংলার মানুষের অর্থনৈতিক ̄স্বাধীনতা অর্জনের জন ̈ উৎসর্গ করেছিলেন। বাংলার খেটেখাওয়া মানুষ যেন ̄স্বনির্ভর হতে পারে সেইজন্য তিনি নিরলসভাবে কাজ করে গেছেন। তিনি শুধু ̄স্বপ্নই দেখেননি বরং ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত দেশ গড়ার জন ̈ আমরন সংগ্রাম করে গেছেন। অনুষ্ঠানের সভাপতি গ্রামীণ ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. একেএম সাইফুল মজিদ বলেন বঙ্গবন্ধু আমাদেরকে দেশের মাটি ও মানুষকে ভালবাসতে শিখিয়ে গেছেন। আমরা যদি তাঁর আদর্শ ও চেতনাকে হৃদয়ে লালন করে দেশ গঠনে যে যার অবস্থান থেকে আত্মনিয়োগ করি তাহলেই তাঁর প্রতি প্রকৃত শ্রদ্ধা জানানো হবে। সম্মানিত অতিথি সবাইকে জাতির পিতার আদর্শ ও মুল্যবোধকে নিজেদের মধ্যেধারণ করার আহ্বান জানান। এছাড়াও বিশেষ অতিথি বলেন বঙ্গবন্ধু আমাদের একটি স্বাধীন দেশ দিয়ে গেছেন। আর দিয়ে গাছেন তার কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তার অসমাপ্ত কাজ শেষ করার জন্য তথা ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত দেশ গড়ার জন্য গ্রামীণ ব্যাংকের  ব্যাবস্থাপনা পরিচালক  জনাব মোঃ আবদুর রহিম খাঁন বলেন প্রতিষ্ঠার পর থেকেই গ্রামীণ ব্যাংক বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে নিরলসভাবে কাজ করে দেশের সার্বিক উন্নয়নে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখছে। গ্রামীণ ব্যাংক দারিদ্র ̈ বিমোচনে সক্রিয় ভুমিকা রেখে, বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মহাপরিকল্পনা বা  বাস্তবায়নে অগ্রনি ভুমিকা রেখে চলেছে এবং ভবিষ্যতেও রাখবে।
অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের শহিদ সদস্যদের আত্মার মাগফেরাত ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া করা হয়। দোয়া মাহফিল শেষে প্রধান কার্যালয় চত্বরে ফলজ ও বনজ গাছের চারা রোপণ করা হয়।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গ্রামীণ ব্যাংক কর্তৃক ঘোষিত সপ্তাহব্যপী চারা রোপণ কর্মসূচিতে বিভিন্ন জেলায় বিগত ৩ দিনে ১.৫৫ কোটি গাছের চারা লাগানো হয়েছে।
উল্লেখ্য যে পরিবেশ রক্ষা ও ঋণগ্রহীতা সদস্যদের সম্পদ সৃষ্টির লক্ষে বিগত ১৫ ই আগষ্ট ২০২১, বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকী থেকে শুরুকরে এ পর্যন্ত ১৩.৮৬ কোটি ফলজ ও বনজ গাছের চারা লাগানো হয়েছে।

আরও দেখুন

ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে মিলিয়নিয়ার হলেন আরো ২ জন

দেশের সুপারব্র্যান্ড ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে মিলিয়নিয়ার হয়েছেন আরো দুই ক্রেতা। তারা হলেন জামালপুর সদরের মাহমুদুল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *