শিরোনাম

বুটেক্সের উপাচার্য হলেন অধ্যাপক ড.শাহ্ আলিমুজ্জামান

বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ^বিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন রুটিন দায়িত্বে থাকা অধ্যাপক ড. শাহ আলিমুজ্জামান। শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ আজ এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। উপাচার্য হিসেবে আগামী চার বছর তিনি দায়িত্ব পালন করবেন।

অধ্যাপক ড. শাহ আলিমুজ্জামান ১৯৯৩ সালের ২৫ জুলাই তৎকালীন কলেজ অব টেক্সটাইল ইনস্টিটিউটের প্রভাষক পদে যোগদান করেন। ২০০১ সালে সহকারী অধ্যাপক এবং ২০০৯ সালে সহযোগী অধ্যাপক পদে উন্নীত হন। ২০১৫ সালের ২৩ মে তিনি অধ্যাপক পদে উন্নীত হন এবং বর্তমানে গ্রেড -১ ভুক্ত অধ্যাপক। তিনি একজন বঙ্গবন্ধু ফেলো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার ভিত্তিক মসলিন পুনরুদ্ধার প্রকল্পের তিনি একজন অন্যতম গবেষক।
অধ্যাপক আলিমুজ্জানান ১৯৮৩ সালে যশোর বোর্ডে বিজ্ঞান বিভাগে প্রথম শ্রেনীতে এবং ১৯৮৫ সালে একই বিভাগ ও বোর্ড থেকে প্রথম শ্রেনীতে উত্তীর্ণ হন। ১৯৮৬ সালে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজ অব টেক্সটাইল ইনস্টিটিউটে (বর্তমানের বুটেক্স) ভর্তি হন তিনি। ১৯৯২ সালে বিএসসি ইন টেক্সটাইল টেকনোলজিতে ফার্স্ট ক্লাস পাওয়া আলিমুজ্জামান এমএসসি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করেন জার্মানির ঘেন্ট বিশ^বিদ্যালয় থেকে ১৯৯৬ সালে। বঙ্গবন্ধু ফেলোশীপের আন্ডারে তিনিই প্রথম বস্ত্র প্রকৌশলী হিসেবে এমফিল ডিগ্রী অর্জন করেন ২০০৩ সালে। পরবর্তীতে ২০০৩ সালে বঙ্গবন্ধু ফেলোশীপ তৎকালীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার পুরোপুরি বন্ধ করে দিলে তিনি দেশে ফিরে আসেন। ২০১০ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর বঙ্গবন্ধু ফেলোশীপ চালুর অনুরোধ করে চিঠি লেখেন ড. আলিমুজ্জামান। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ২০১০ সালে আবারো বঙ্গবন্ধু ফেলোশীপ চালু হলে তিনিই প্রথম বস্ত্র প্রকৌশলী হিসেবে ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন। ২০১৪ সালে দেশে ফিরে টেক্সটাইল বিশ^বিদ্যালয়ের অধ্যাপক পদে উন্নীত হয়ে অধ্যাবদি বিভিন্ন দায়িত্ব পালন করেছেন।
শিক্ষকতা জীবনের শুরু থেকেই তিনি বিভিন্ন দায়িত্ব অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে পালন করেছেন। সহকারী হল প্রভোস্ট, হল প্রভোস্ট, কলেজ ইন্সপেক্টর, প্রক্টর, পরিচালক (শিক্ষার্থী কল্যান), বিভাগীয় প্রধান, অধিভুক্ত কলেজের পরীক্ষা কমিটির সভাপতি এবং ফ্যাকাল্টি অব টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডীন এবং সিন্ডিকেট সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন অধ্যাপক ড. শাহ্ আলিমুজ্জামান। এছাড়া শিক্ষক সমিতির নির্বাচিত সভাপতি (দুই মেয়াদ -২০১৯ থেকে অদ্যাবদি) এবং বিশ^বিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) হিসেবে দুই বছর দায়িত্ব পালন করেছেন অধ্যাপক ড. শাহ্ আলিমুজ্জামান।
ব্যক্তি জীবনে তিন কন্যার জনক ড. আলিমুজ্জামান টেক্সটাইল বিশ^বিদ্যালয়ের প্রথম গবেষণা পেটেন্টেরও মালিক। সেলাইবিহীন পাটের ব্যাগ তৈরি তার হাত ধরেই। এছাড়া তিনি একজন ঈঞবীঃ.ঋঞও (ঈযধৎঃবৎবফ ঋবষষড়ংিযরঢ়), দ (টেক্সটাইল জগতের সর্বোচ্চ পেশাদারী সংগঠন) ম্যানচেস্টার, যুক্তরাজ্য। বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার্স এসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি ড. আলিমুজ্জামান শিক্ষার্থীদের জন্য লিখেছেন একাধিক বই। রয়েছে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং এর উপর বেশ কিছু গবেষনা নিবদ্ধ। এ পর্যন্ত আন্তর্জাতিক বিভিন্ন জার্নালে তার ২২টির বেশি গবেষণা নিবদ্ধ প্রকাশিত হয়েছে তার।

আরও দেখুন

প্রেসিডেন্সী ইউনিভার্সিটিতে “Mastering the Art of Effective Communication: Strategies for Success.” ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত।

প্রেসিডেন্সী ইউনিভার্সিটির অফিস অফ স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড ক্যারিয়ার সার্ভিসেস এর উদ্যোগে ২৭ মার্চ, ২০২৪ বুধবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *