শিরোনাম

লালমাই-ময়নামতি অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী স্থানে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড-এর উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী

সবুজায়ন প্রতিষ্ঠার প্রতিশ্রুতির অংশ হিসেবে সম্প্রতি দেশের লালমাই-ময়নামতি অঞ্চলে ২,৫০০ চারাগাছ রোপন করেছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ। তরুপল্লব-এর সহযোগিতায় পরিচালিত এই উদ্যোগে ঢাকার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ব্যাংকের দুই শতাধিক কর্মী অংশগ্রহণ করেন। এর মাধ্যমে লালমাই-ময়নামতি অঞ্চলের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য সবুজায়ন নিশ্চিত করাই স্ট্যান্ডার্ডের চার্টার্ডের মূল লক্ষ্য।

তরুপল্লবের সহযোগিতায় যত্ন সহকারে বিভিন্ন চারাগাছ সংগ্রহ এবং অতঃপর রোপণ করা হয়। লালমাই-ময়নামতি অঞ্চলের শাল বন পুনরুদ্ধারে শাল গাছের বিভিন্ন চারাগাছ রোপণ করা হয়। বাংলাদেশের বৌদ্ধ প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল হিসেবে লালমাই-ময়নামতি ধর্মীয় ও আধ্যাত্মিক তাৎপর্য বহন করে। বলা হয়, অশ্বথ গাছের নীচে বসে গৌতমবুদ্ধ দীক্ষা অর্জন করেছিলেন। তাই সেই মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করতে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ডের পক্ষ থেকে উক্ত অঞ্চলে অশ্বথ গাছের চারা রোপণ করেন। এছাড়া, ব্যাংকের কর্মীরা জীববৈচিত্র্য রক্ষার্থে ও স্থানীয়দের চাহিদা মেটাতে বিভিন্ন বিরল ও ঔষধি গাছের চারা, এবং শোভাবর্ধণের জন্য বিভিন্ন চারাগাছ রোপণ করেন।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ-এর সিইও নাসের এজাজ বিজয় বলেন, “লালমাই-ময়নামতি’র ঐতিহ্য রক্ষা ও সংরক্ষণ করা আমাদের সকলের দায়িত্ব, বিশেষ করে ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য। নিজেদের অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি সাধনের পাশাপাশি এই স্থানগুলোর যত্ন নিতে অবহেলা করারও কোন সুযোগ নেই। এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশের ২০০-এরও বেশি কর্মী প্রত্যেকে ঐতিহ্যবাহী স্থানে অন্তত একটি করে চারা রোপণ করে ভূমিকা রেখেছে, এবং এর মাধ্যমে আমরা দেশিয় সংস্কৃতি ও ইতিহাস রক্ষায় স্থানীয় সম্প্রদায়, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং সরকারী কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারবো বলে আমি আশাবাদী। জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের বাংলাদেশ প্রথম সারির যোদ্ধা, আর এই যুদ্ধে বাংলাদেশের পাশে দাঁড়াতে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড সর্বদা প্রস্তুত।”

দীর্ঘ ১১৮ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলাদেশে নিরবচ্ছিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করা স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকই দেশের একমাত্র বহুজাতিক ব্যাংক। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক জাতির কল্যাণে, অর্থনৈতিক বৈষম্য দূরীকরণে, এবং পরিবেশ রক্ষার মাধ্যমে দেশের বাণিজ্য ও উন্নয়ন যাত্রার দীর্ঘস্থায়ী গর্বিত অংশীদার। টেকসই ও সমতার আদর্শকে কেন্দ্রে রেখে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নের জন্য ব্যাংকটি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। দেশব্যাপি পরিবেশ রক্ষা ও সবুজায়ন নিশ্চিতে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বিগত বছরগুলোয় বেশ কয়েকটি বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পরিচালনা করেছে। তরুপল্লবের সহযোগিতায় ২০২১ সালে ১,৬০০টি এবং ২০২২ সালে ২,০০০টি চারাগাছ রোপণ করা হয়েছে।

২০০৮ সালে যাত্রা শুরুর পর থেকে তরুপল্লব বর্তমান ও ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য বাংলাদেশের পরিবেশগত সুরক্ষার নিশ্চিতে কাজ করে যাচ্ছে। সংস্থাটি বিগত ১৫ বছর যাবত আমাদের উদ্ভিদ এবং প্রাণীজগত সম্পর্কে সকলকে সচেতন করে চলেছে। বর্তমানে তরুপল্লব বেশ কয়েকটি উদ্যোগের মাধ্যমে প্রকৃতিপ্রেমীরা বাংলাদেশে পাওয়া যায় এমন বিরল ও দুর্লভ উদ্ভিদ ও প্রাণীকূল সম্পর্কে সহজে জানতে পারছে।

আরও দেখুন

হুয়াওয়ে আইসিটি কম্পিটিশনের গ্লোবাল রাউন্ডে অংশ নিতে চীনে বাংলাদেশ দল

হুয়াওয়ে আইসিটি কম্পিটিশন ২০২৩-২৪ এর আঞ্চলিক পর্বে বিজয়ের পর গ্লোবাল রাউন্ডে অংশ নিতে চীন সফরে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *