শিরোনাম

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃক হজ ফ্লাইটের শুভ উদ্বোধন

‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ ধ্বনিতে মুখরিত হতে চলেছে আরাফাত ময়দান ও কাবা এলাকা। আল্লাহর মেহমানগণ পবিত্র হজ পালনের জন্য পবিত্র ভূমিতে যাত্রা শুরু করেছেন। বাংলাদেশ থেকে ২০২৩ সালে বিমানের প্রথম হজ ফ্লাইট বিজি৩০০১ আজ ২১ মে ২০২৩ তারিখ ভোর ০৩:২০টায় ৪১৫জন হজযাত্রী নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে জেদ্দার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছে। ফ্লাইটটি জেদ্দায় পৌঁছাবে স্থানীয় সময় সকাল ০৭:৩০টায়। আজ ২১মে বিমানের ৫টি ডেডিকেটেড হজ ফ্লাইটের মাধ্যমে মোট ২০৯৫ হজযাত্রী ঢাকা থেকে জেদ্দার উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন। ভোর ০৩:২০, সকাল ০৭:০৫, ১০:৩০, দুপুর ০২:২০ ও রাত ১০:৫০টায় ফ্লাইটগুলো ঢাকা থেকে জেদ্দার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে।

ইতোমধ্যে সম্মানিত হজযাত্রীদের পদধ্বনিতে মুখরিত হতে শুরু করেছে আশকোনা হজক্যাম্প। হজযাত্রীগণ যেন নির্বিঘ্নে ও সুন্দরভাবে হজে যেতে পারেন এবং পবিত্র হজ পালন শেষে সুস্থভাবে মাতৃভূমিতে ফিরে আসতে পারেন সে উদ্দেশ্যে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে হজফ্লাইট পরিচালনা করছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

২০মে দিবাগত মধ্যরাতে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃক প্রথম হজফ্লাইটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জনাব মোঃ মাহবুব আলী, এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জনাব মোঃ ফরিদুল হক খান, এমপি এবং ঢাকা ১৮ আসনের সংসদ সদস্য জনাব মোহাম্মদ হাবিব হাসান। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক সিনিয়র সচিব জনাব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব মোঃ মোকাম্মেল হোসেন, সিভিল এভিয়েশনের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মোঃ মফিদুর রহমান, বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও জনাব শফিউল আজিম, বাংলাদেশে নিযুক্ত সৌদি রাষ্ট্রদূত, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক, হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) এর সভাপতি, মন্ত্রণালয়, সিভিল এভিয়েশন ও বিমানের উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

বিমান প্রতিমন্ত্রী জনাব মোঃ মাহবুব আলী বলেন, হজযাত্রীদের নিরাপদে পবিত্রভূমিতে পৌঁছে দিতে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী হজ যাত্রীদেরকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়া হচ্ছে। ‘রুট টু মক্কা’ সার্ভিসের মাধ্যমে হজযাত্রীদের ইমিগ্রেশন ঢাকা থেকেই সম্পন্ন হচ্ছে। ফলে হজযাত্রীগণ সৌদি আরবে পৌঁছানোর পর কোনরূপ জটিলতা ছাড়াই সরাসরি হোটেলে চলে যেতে পারবেন।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী জনাব মোঃ ফরিদুল হক খান হজ কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ও অতিথিগণ ওয়েটিং লাউঞ্জে হজযাত্রীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করে হজযাত্রীদের সাথে মোনাজাতে অংশ নেন। মোনাজাত শেষে প্রতিমন্ত্রীগণ হজযাত্রীদের জেদ্দার উদ্দেশ্যে যাত্রার জন্য বিদায় জানান।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সম্মানিত হজযাত্রীদের সুবিধার্থে এবছরও ঢাকার পাশাপাশি চট্টগ্রাম ও সিলেট থেকে হজ ফ্লাইট পরিচালনা করবে। এবছর ১,২২,২২১ জন বাংলাদেশি হজব্রত পালনের নিমিত্তে পবিত্র ভূমি সৌদি আরব যাবেন। এর মধ্যে বিমান ৬১,১১১ জন হজযাত্রী পরিবহন করবে। প্রি-হজে মোট ১৬২টি হজ ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান। আজ থেকে হজফ্লাইট পরিচালনা শুরু হলো। এবছর হজযাত্রী পরিবহনে বিমানের নিজস্ব বোয়িং ৭৭৭-৩০০ইআর এর পাশাপাশি বোয়িং ৭৮৭-৯ ড্রিমলাইনার ব্যবহৃত হচ্ছে।

আরও দেখুন

দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রীর রেড ক্রিসেন্ট পরিদর্শন; পারস্পরিক সম্পর্ক জোরদারের পরামর্শ। 

 দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় সরকারের সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে রেড ক্রিসেন্টের অবদান অনস্বীকার্য উল্লেখ করে আগামীতেও এর ধারাবাহিকতা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *